শেষবার শিল্পকলায় শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত আহমেদ রুবেল

বিনোদন

শেষবার রাজধানীর সেগুনবাগিচার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জনপ্রিয় অভিনেতা আহমেদ রুবেল। এর আগে অনেকবার শিল্পকলায় গিয়েছেন তিনি। তবে আজ বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় সকালে তার যাওয়াটা ছিল অন্যরকম। তাকে আনা হয়েছিল নিথর দেহে, এটাই তার শেষবারের মতো শিল্পকলা ভ্রমণ। আর এই গুণী অভিনেতাকে শেষবারের মতো শ্রদ্ধা জানাতে আসেন সহকর্মী ও অনুরাগীরা।

ঢাকা থিয়েটারের উদ্যোগে লাশবাহী ফ্রিজারে করে সকাল ১১টার দিকে শিল্পকলা চত্বরে আনা হয় আহমেদ রুবেলের মরদেহ। গাড়ি থেকে নামানোর সঙ্গে সঙ্গে একে একে প্রত্যেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত করেছেন অনুরাগী ও সহশিল্পীরা।

এ ছাড়াও আহমেদ রুবেলকে শ্রদ্ধা নিবেদন জানাতে আসে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপকমিটি, গ্রাম বাংলা থিয়েটার, অভিনয় শিল্পী সংঘ, সাংসদ ও চিত্রনায়ক ফেরদৌস।

ঢাকা থিয়েটারের পক্ষে নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু বলেন, ১৯৮৭ সালে রুবেল ঢাকা থিয়েটারের যোগ দেয়। এরপর থেকে তিনি আমাদের সক্রিয় সদস্য। আজকের এই শ্রদ্ধা নিবেদন শুধু ঢাকা থিয়েটারের নয়, বরং তাকে বিদায় জানাচ্ছে দেশের সকল থিয়েটারকর্মী।

নির্মাতা মোর্শেদুল ইসলাম বলেন, যতজন শেখ মুজিবের চরিত্রে অভিনয় করেছেন আমার কাছে মনে রুবেলই পারফেক্ট ছিল। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি। তাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করলে কথা বলে শেষ করা যাবে না।

আজ দুপুরে অভিনেতা আহমেদ রুবেলকে শেষ শ্রদ্ধা জানাবে চ্যানেল আই। এ বিষয়ে চ্যানেল আইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আহমেদ রুবেলের মরদেহ দুপুর পৌনে একটার দিকে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে নিয়ে আসা হবে। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণেই হবে অভিনেতার জানাজা।

এরপর অভিনেতার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে হবে গাজীপুরে। সেখানে উত্তর ছায়াবীথি, জোড় পুকুরে আসর বাদ অভিনেতার দাফন হবে।

বুধাবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলের স্টার সিনেপ্লেক্সে নুরুল আলম আতিকের ‘পেয়ারার সুবাস’ সিনেমার বিশেষ প্রদর্শনী ছিল। এ প্রদর্শনীতেই যোগ দিতে উত্তরা থেকে নিজে গাড়ি চালিয়ে ভেন্যুতে এসেছিলেন আহমেদ রুবেল। নুরুল আলম আতিকে সঙ্গে নিয়ে কমপ্লেক্সের লিফটে উঠার সময় হুট করে অচেতন হয়ে পড়েন রুবেল। এরপর তাঁকে স্কয়ার হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসরা অভিনেতাকে মৃত ঘোষণা করেন।

Visits: 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *