গাজায় যুদ্ধবিরতির আহ্বান প্রত্যাখ্যান নিরাপত্তা পরিষদের

আন্তর্জাতিক

ইসরাইল ও হামাসের মধ্যে চলমান সংঘাতে রাশিয়ার ‘মানবিক যুদ্ধবিরতি’র আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদ। সোমবার রাতে রাশিয়া এ প্রস্তাব উত্থাপন করে।

নিরাপত্তা পরিষদে চীন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মোজাম্বিক ও গ্যাবন এই চারটি দেশ রাশিয়ার সাথে এই প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয় অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জাপান এর বিপক্ষে ভোট দেয়।

বাকি ছয়টি দেশ ভোট দেয়া থেকে বিরত ছিল। ১৫ সদস্যের কাউন্সিলে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার জন্য ন্যূনতম নয়টি ‘হ্যাঁ’ ভোটের প্রয়োজন।

এর আগে রোববার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে ইসরাইল-হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি’র আহ্বান জানাবে রাশিয়া।প্রতিবেদন অনুসারে, জাতিসঙ্ঘে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত দিমিত্রি পলিয়ানস্কি বলেছেন যে- গত শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলোর কাছে যে খসড়া প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে এখন পর্যন্ত তাতে কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি।এক পৃষ্ঠার খসড়া প্রস্তাবে বন্দিদের মুক্তি, মানবিক সহায়তার পথ খুলে দেওয়া ও বেসামরিক ব্যক্তিদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়ার প্রয়োজনীয়তার কথা বলা হয়।

প্রস্তাবে ইসরাইল-ফিলিস্তিনের কথা উল্লেখ করা হলেও সরাসরি হামাসের নাম বলা হয়নি।

সাধারণত নিরাপত্তা পরিষদের যেকোনো উদ্যোগ থেকে যুক্তরাষ্ট্র তার ঘনিষ্ঠ মিত্র ইসরাইলকে রক্ষা করে থাকে।

উল্লেখ্য, গাজাভিত্তিক ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ইসরাইলের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করেছে বলে ঘোষণা করে। এর প্রতিরোধে পাল্টা হামলা শুরু করে ইসরাইল।

এক বিবৃতিতে হামাসের সামরিক শাখার প্রধান মোহাম্মদ দেইফ বলেন, গত শনিবার (৭ অক্টোবর) সকালে ইসরাইলে পাঁচ হাজার রকেট বর্ষণের মাধ্যমে ‘অপারেশন আল-আকসা স্ট্রম’ শুরু হয়েছে। এ সময় ইসরাইল গাজা থেকে অনুপ্রবেশের কথা স্বীকার করে।

হামাস ও ইসরাইলের মধ্যে চলমান সংঘাতে ৪ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। গত এক সপ্তাহ ধরে চলা এ যুদ্ধে আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১৪ হাজার ৩০০ জন।

এখন পর্যন্ত যত ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন তাদের মধ্যে ৬৬ শতাংশই নারী ও শিশু বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
সূত্র : আল-জাজিরা

Visits: 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *