ইমরান খানকে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের ভর্ৎসনা

ইমরান খানকে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের ভর্ৎসনা

আন্তর্জাতিক
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ডেকে নিয়ে ভর্ৎসনা করেছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। গতকাল বুধবার এ ঘটনা ঘটে।

২০১৪ সালে পেশোয়ার আর্মি পাবলিক স্কুলে হামলায় অভিযুক্ত তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) সঙ্গে সরকারের চলমান আলোচনা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন আদালত।

পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি গুলজার আহমেদের নেতৃত্বে বিচারপতি কাজী মোহাম্মদ আমিন আহমেদ ও বিচারপতি জিয়াউল হাসানকে নিয়ে গঠিত বেঞ্চ সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী ইমরানকে আদালতে হাজির হতে বলেন।

২০১৪ সালে পেশোয়ারের ওই আর্মি স্কুলে টিটিপির অস্ত্রধারী জঙ্গিরা হামলা চালালে ১৩২ শিশুসহ মোট ১৪৭ জনের প্রাণহানি ঘটে। ওই সময় প্রাদেশিক ক্ষমতায় ছিল ইমরান খানের দল তেহরিক-ই-ইনসাফ। সাত বছর পরেও ওই হামলার সঙ্গে জড়িতদের বিচার হয়নি। এদিকে সাম্প্রতিক বিক্ষোভের জেরে ইমরানের সরকার টিটিপির সঙ্গে আলোচনায় বসে।

ওই হামলার ঘটনায় কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, ইমরান খানের কাছে তা জানতে চান আদালত। বিচারপতি জিয়াউল হাসান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে বলেন, হতাহতদের শিক্ষার্থীদের বাবা-মাকে আমাদের সন্তুষ্ট করা প্রয়োজন।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান স্বীকার করে নেন যে তাঁর দল খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের ক্ষমতায় ছিল। ইমরান খান জানান, হামলার পর তিনি অভিভাবকদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। হাসপাতালে আহতদেরও দেখতে গিয়েছিলেন।

ইমরান খান বলেন, সে সময় আমরা যতটুকু পেরেছি ব্যবস্থা নিয়েছি। এ সময় পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি ইমরান খানকে বলেন, হতাহতদের অভিভাবকেরা সরকারের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ চাইছে না। তারা পুরো নিরাপত্তা ব্যবস্থা কোথায় ছিল তা জানতে চাচ্ছেন।

প্রধান বিচারপতি সংবিধান হাতে নিয়ে বলেন, এটা দেশের প্রত্যেক নাগরিককে নিরাপত্তা পাওয়ার নিশ্চয়তা দিয়েছে। পাকিস্তানের বিচারক কাজি মুহাম্মদ আমিন আহমেদ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে বলেন, আপনি দোষীদের আলোচনার টেবিলে এনেছেন। আমরা কি আবার একটি আত্মসমর্পণ দলিলে স্বাক্ষর করতে যাচ্ছি?

পরে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে বলা হয়, সরকারের উচিত অভিভাবকদের দাবির প্রতি মনোযোগ দেওয়া এবং দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া। গত সোমবার পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী নিষিদ্ধ এই সংগঠনের সঙ্গে পূর্ণ অস্ত্রবিরতিতে পৌঁছানোর ঘোষণা দিয়েছেন। পাকিস্তানে নিষিদ্ধ সন্ত্রাসী গোষ্ঠী টিটিপি কমপক্ষে ৭০ হাজার হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ী।

Hits: 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *