দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের মুখোমুখি শিল্পকলার ডিজি

দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের মুখোমুখি শিল্পকলার ডিজি

দেশজুড়ে
অর্থপাচার ও দুর্নীতির অভিযোগে শিল্পকলার ডিজি লিয়াকত আলী লাকীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচা দুদকের প্রধান কার্যালয়ে দুর্নীতির মাধ্যমে শত শত কোটি টাকার সম্পদ অর্জন ও পাচারের অভিযোগে অনুসন্ধান কর্মকর্তা মোহাম্মদ তাকে ইন্টারোগেশন সেলে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন বলে জানান দুদকের সংশ্লিষ্ট সূত্র।

জানা যায়, গত ৫ জানুয়ারি লিয়াকত আলী লাকীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলবি চিঠি ইস্যু করা হয়। ওই চিঠিতে বলা হয়েছে- বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণ, ক্ষমতার অপব্যবহার, বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতিসহ ভুয়া বিল ভাউচারের মাধ্যমে শত শত কোটি টাকা আত্মসাৎসহ বিপুল পরিমাণ সম্পদ অর্জন ও বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে। এ সংক্রান্ত অভিযোগ অনুসন্ধানের জন্য দুদকের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও সহকারী পরিচালক আফনান জান্নাত কেয়াকে সদস্য করে দুই সদস্যের একটি অনুসন্ধান কমিটি করেছে।

সূত্র আরো জানায়, অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে লিয়াকত আলী লাকীর কাছে এর আগে কিছু রেকর্ডপত্র চাওয়া হয়েছিল। এগুলো হলো- ২০১৯-২০ অর্থ বছরে শিল্পকলা একাডেমি, ঢাকাতে বরাদ্দকৃত বাজেট এবং ব্যয় সংক্রান্ত রেকর্ডপত্র সম্বলিত নথির ফটোকপি, ২০২০-২১ অর্থ বছরে শিল্পকলা একাডেমি, ঢাকাতে বরাদ্দকৃত বাজেট এবং ব্যয় সংক্রান্ত রেকর্ডপত্র সম্বলিত নথির ফটোকপি এবং ২০২০-২১ অর্থ বছরে শিল্পকলা একাডেমির অব্যয়িত ৩৫ কোটি টাকা ৩০/৬/২০২১ তারিখে ব্যয়করণ সংক্রান্ত রেকর্ডপত্র। এছাড়া একই অর্থ বছরে ভার্চুয়াল অনুষ্ঠান আয়োজন সংক্রান্ত রেকর্ডপত্র সম্বলিত নথির ফটোকপি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, লিয়াকত আলী লাকীর কাছে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছর থেকে ৩১/১২/২০২১ তারিখ পর্যন্ত ব্যয় সংক্রান্ত বিভিন্ন ভাউচার, ক্যাশ বহি একং শিল্পকলা একাডেমী নামীয় সোনালী ব্যাংক, সেগুনবাগিচা শাখা, ঢাকা থেকে ব্যাংক স্টেটমেন্টের কপিও চাওয়া হয়। গত সপ্তাহে লিয়াকত আলী লাকীর পক্ষে এসব নথিপত্র দুদকের সংশ্লিষ্ট অনুসন্ধান কর্মকর্তার কাছে জমা দেওয়া হয়েছে।

Hits: 0

Leave a Reply

Your email address will not be published.